আমাদের দ
ছোটদের রাজ্য
  • ছোটদের ঘুরাঘুরি

 

ছোটরা সাধারণত কোথাও ঘুরতে নিয়ে গেলে বেশি আনন্দিত হয়। আমাদের দেশেই রয়েছে এমন অনেক জায়গা যেখানে আমাদের ছোট ছোট ছেলে মেয়েদের নিয়ে গেলে তারা ভীষন আনন্দিত হবে। আমাদের দেশটাকে বলা হয় সোনার বাংলা। এ দেশের চার পাশে রয়েছে নানা রকম সৌন্দর্য। এখানে তার কিছু অংশ তুলে ধরা হল।

 

ঢাকা-

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকাতেই রয়েছে বাচ্চাদের জন্য ঘুরে দেখার দারুন সব জায়গা। সারা বছর লেখা পড়ার ব্যস্ততার ফাকে আমাদের কোমল মতি শিশুদের এসব স্থানে নিয়ে গেলে ওরা দারুন আনন্দিত হবে এবং সেই সাথে দেশকে জানতে পারবে,দেশকে ভাল বাসতে শিখবে।

 

জাতীয় যাদুঘর-

শিশুদের এমনকি বড়দের জন্যও ঘুরতে যাওয়ার অন্যতম একটা স্থান আমাদের জাতীয় যাদুঘর। যাদুঘর হলো জাতীর মননের প্রতীক। বিভিন্ন সময়কার বিভিন্ন জিনিস এখানে সংগ্রহীত থাকে। একটা দেশকে সঠিক ভাবে জানতে হলে সে দেশের যাদুঘর গুলোতে ঘুরে দেকা যেতে পারে। শিক্ষা নগরী বা অঞ্চল বলে খ্যাত এবং প্রাচ্যের অক্সফোর্ড ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা শাহাবাগে অবস্থিত আমাদের জাতীয়

যাদুঘর।......................চলবে

 

জাতীয় যাদুঘরের ওয়েব সাইট এখানে

 

শিশু যাদুঘর-

শিশুদের জন্য শিশু যাদুঘর হচ্ছে অনেকটা স্বর্গের মত। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরেই এর অবস্থান। দোয়েল চত্তর পার হতেই চোখে পড়ে শিশু যাদুঘরের আঙ্গিনা। এখানে আছে বাংলাদেশের ইতিহাসের সবকিছু চাক্ষুস দেখার সুযোগ। ছোট ছোট রেপ্লিকা আকারে বানানো হয়েছে সব ইতিহাসের চিত্র। বঙ্গবন্ধুর ভাষণ থেকে শুরু করে মাওলানা ভাসানী,তিতুমীরের বাশের কেল্লা সব কিছু। বিনা পয়সায় এখানে প্রবেশ করা যাবে সেই সাথে নিজের অনুভূতির কথা লিখে রেখে যাওয়া যাবে । ইচ্ছেমত ছবিও তুলে নেয়া যাবে।

ইতিহাসকে কাছ থেকে দেখার এ এক দারুণ সুযোগ। যারা ঢাকায় থাকে তাদের জন্য এ এক দারুণ সুযোগ। যারা ঢাকার বাইরে থেকে ঢাকায় আসে তাদেরও উচিত এটা অন্তত একবার হলেও দেখে যাওয়া।

 

জাতীয় কবির মাজার

 

আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম সব শিশু কিশোরদের মন জয় করে নিয়েছে তার অসাধারন সব রচনার মাধ্যমে। তিনি ঘুমিয়ে আছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পাশেই। তারই পামে আছেন শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীন,জাতীয় পতাকার ডিজাইনার কামরুল হাসান। বইয়ের পাতায় যাদের ছবি দেখেছে যাদের লেখা পড়েছে আমরা একটু ইচ্ছে করলেই আমাদের বাচ্চাদের ঘুরিয়ে আনতে পারি এসব জায়গা। ঢাকা শহরের যে কোন জায়গা থেকে খুব সহজেই এখানে আসা যায় এ ছাড়াও ঢাকার বাইরে থেকে যারা আসতে চান তারাও সহজে চলে আসতে পারেন।

 

আহসান মঞ্জিল যাদুঘর

শিশু পার্ক

রমনা পার্ক

চিড়িয়াখান

রায়ের বাজার স্মৃতি সৌধ

 

ফ্যান্টাসী কিংডম

 

নন্দন পার্ক

 

জাতীয় স্মৃতি সৌধ

 

ঢাকা থেকে একটু দূরে অবস্থিত সাভার। জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়কে বুকে ধরার পাশাপাশি বুকে ধরে আছে শহীদ স্মরণে নির্মিত স্মৃতিসৌধ। সাত বীর শ্রেষ্ঠ সহ স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদদের স্মরণে নির্মিত হয়েছে এই স্মৃতি সৌধ। আমাদের কোমলমতি বাচ্চারা এখানে এসে দেশের ইতিহাস এবং দেশের জন্য যারা প্রাণ দিয়েছে তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর পাশা পাশি দেশ প্রেমে উদ্বুদ্ধ হবে। দেশের যে কোন স্থান থেকেই এখানে আসার সুযোগ আছে। 

 

 

শহীদ মিনার

 

লালবাগ কেল্লা